Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে ১৬ ম্যাচ খেললেন পাওলো দিবালা। সব মিলিয়ে ৭৫২ মিনিট খেলেছেন। কিন্তু এখনো প্রথম গোলটার দেখা পাননি। আর্জেন্টিনার সামাজিক মাধ্যমে একটা ট্রল বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। ফাইন্ডিং নিমো অ্যানিমেশন ছবির পোস্টারটা একটু ঘঁষেমেজে বানানো হয়েছে ফাইন্ডিং মেসি। লিওনেল মেসি বিশ্বকাপের পর আর্জেন্টিনার চার ম্যাচের একটিতেও খেলেননি। জাতীয় দলে আর ফিরবেন না, এমন ধনুকভাঙা প্রতিজ্ঞা মেসি করেননি।


তবে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখে আর্জেন্টিনা দলটাকে নতুন করে গড়ে তুলতে পরোক্ষে ভূমিকা রাখছেন। গত চার ম্যাচের তিনটিতে জেতা আর্জেন্টিনা ধীরে ধীরে নিজেদের গোছাচ্ছেও। কাল ব্রাজিলের কাছে ১-০ গোলে হেরে গেলেও দলের খেলায় আশাবাদী হওয়ার মতো অনেক কিছুই আছে। তবে এই প্রশ্নটা আরও বড় হচ্ছে দিন দিন, মেসির শূন্যতা পূরণ করার জন্য পাওলো দিবালা কি প্রস্তুত?

কিছুদিন আগে চ্যাম্পিয়নস লিগে জুভেন্টাসের জার্সিতে হ্যাটট্রিক করেছেন। জুভেন্টাসের মধ্যে একজন নতুন মেসিকে অনেক দিন ধরেই দেখছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু ক্লাব বনাম জাতীয় দলের জার্সির প্যারাডক্সটা দিবালার জন্য আরও বেশি করে খাটছে। জাতীয় দলের হয়ে এ নিয়ে ১৬ ম্যাচ খেলে ফেললেন। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, দিবালা এখনো একটাও গোল করেননি! ৭৫২ মিনিট খেলে একটিও গোল নেই!
১৬ ম্যাচের ৯টিতে দিবালা শুরু থেকে খেলেছেন। এর মধ্যে দুটি ম্যাচে খেলেছেন পুরো ম্যাচে। সব মিলিয়ে খেলেছেন ১২ দলের বিপক্ষে। কিন্তু একবারও জাল খুঁজে পাননি। গতকাল ব্রাজিল ম্যাচে মাঝেমধ্যে কিছু ঝলক দেখা গেছে। কিন্তু সব মিলিয়ে গোলে শটই নিতে পেরেছেন একটি। অবশ্য ২৯ মিনিটে মাঝারিপাল্লার এক দুর্দান্ত ফ্রি কিক নিয়েছিলেন। পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে গেছে। এ ছাড়া কালও দিবালাকে দেখে মনে হলো বিভ্রান্ত, কী করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না। সতীর্থদেরও বুঝছেন না। পুরো ম্যাচে মাউরো ইকার্দিও যে নিষ্ফলা থাকলেন, এর দায় দিবালারও। দুজনের মধ্যে বোঝাপড়াই ছিল না।

অথচ একসময় মনে করা হতো, মেসিই দিবালার জন্য মূল সমস্যা। মেসির অনেকটা কার্বন কপি দিবালা। খেলার ধরন, পজিশন, এমনকি মেসির মতো তিনিও বাঁ পায়ের খেলোয়াড়। এ কারণে মেসি থাকলে দিবালা সফল হবেন না, এটাই ছিল তখনকার তত্ত্ব। কিন্তু এখন? আর্জেন্টিনার ভারপ্রাপ্ত কোচ লিওনেল স্কালোনি চার ম্যাচের তিনটাতেই খেলিয়েছেন দিবালাকে, যে চার ম্যাচে মেসি ছিলেনই না। তবু তো গোল এল না!

শেষ পর্যন্ত ৫৭ মিনিটে তাঁকে তুলে লওতারো মার্টিনেজকে নামিয়ে দিলেন কোচ স্কালোনি। হাঁটুতে বরফ ব্যাগ নিয়ে বসে থাকতে দেখা গেল জুভেন্টাস তারকাকে। বোঝা গেল, ম্যাচে ফিটনেসের সমস্যাতেও ভুগেছেন।

দিবালা নিজেও যে গোল পেতে মরিয়া হয়ে গেছেন, তা বোঝা যায়। ম্যাচের আগে বলেছেন, আর্জেন্টিনার জার্সি একবার গায়ে তোলার মানে হলো মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত এটার জন্য লড়াই করে যাওয়া।

bottom