Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

সুস্বাস্থ্য ও মেদহীন শরীর আমাদের সকলের কাম্য। কিন্তু সেটা অর্জন করতে একটু পরিশ্রম তো করতে হবেই। এছাড়া আমাদের অসচেতনেতার কারণে সুস্বাস্থ্য রয়ে যায় হাতের নাগালের বাইরে। যেমন ধরুন, সকালে নাস্তার আগে কী করতে হবে? অবশ্যই দাঁত ব্রাশ, অন্তত এমন জবাবটাই দেবেন সবাই। কিন্তু জানেন কি? দাঁত ব্রাশ করার পর্বটি নাশতার আগে নয় বরং নাশতার পরে করলেই ভালো। আর এতেই সুস্থ থাকবে আপনার দাঁত। এছাড়াও সুস্বাস্থ্য পেতে রয়েছে আরো কিছু উপায়।


# ঘুম থেকে উঠেই নাশতা নয়
একেক জনের সকাল একেক সময়ে হয়। কেউ ঘুম থেকে ওঠেন ৭ টায়, কেউ ওঠেন ৯ টায়, কেউ আবার ১১ টায়। যে যখন ওঠেন, তার জন্য সেটাই সকাল। তবে সুন্দর ও নীরোগ শরীর চাইলে অবশ্যই সকাল সকাল ওঠার অভ্যাস করতে হবে। ঘুম থেকে উঠেই নাশতার টেবিলে বসে গেলে চলবে না। শরীরকে জেগে ওঠার সময় দিতে হবে। ঘুম ভাঙার কমপক্ষে আধা ঘণ্টা পর নাশতা করুন।

# অবশ্যই ব্যায়াম
মেদহীন ঝরঝরে শরীর চাইলে অবশ্যই সকালের নাশতার আগে ব্যায়াম করবেন। সকালের ব্যায়াম অনেক বেশী ফলপ্রসূ। সম্ভব হলে বাইরের কোথাও মর্নিং ওয়াক করতে যাবেন। এতে শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকবে।

# দাঁতের রুটিন
রাতের বেলা অবশ্যই দাঁত ব্রাশ করে ঘুমাবেন। আর সেটা করে যদি ঘুমান, তাহলে সকালে দাঁত ব্রাশ করার কোনো প্রয়োজন নেই। নাস্তার আগে খুব ভালো করে কুলি করে নেবেন। এবং নাস্তা করা শেষ হলে তারপর দাঁত ব্রাশ করে নেবেন। দাঁত ফ্লস করবেন ও মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করবেন।

# এক গ্লাস পানি অবশ্যই
সকালে নাস্তার আগে এক গ্লাস পানি অবশ্যই জরুরী। এই পানিটি ঘুম থেকে ওঠার পর পান করলেই ভালো। সারা রাত আপনার শরীর পানি শুন্য ছিল। তাই ঘুম থেকে উঠেই তাকে পানি দেয়া জরুরী। এই পানি আপনার পাকস্থলীকে সুস্থ রাখবে, আপনার দেহের পানিশূন্যতা রোধ করবে, ভালো রাখবে ত্বক ও চুল। পানি না পান করে খালি পেটে নাস্তা কখনোই খাবেন না।

# মেটাবোলিজম বাড়াতে চাইলে
যাদের ওজনের সমস্যা আছে বা হজমের সমস্যা আছে, তাঁরা মেটাবোলিজম বাড়াতে নাস্তার আগে পান করুন মধু মেশানো উষ্ণ পানি। যাদের লেবুতে গ্যাসের সমস্যা হয় না, তাঁরা পাকা লেবুর রস সামান্য চিপে দিতে পারেন। এই পানীয়টি মেটাবোলিজম বাড়ায় ও ওজন কমাতে সহায়তা করে।

# পেট বা লিভারের সমস্যা আছে যাদের
এমন সমস্যা থাকলে সকালে নাস্তার আগে খালি পেটে অবশ্যই এক কোয়া রসুন খান। আপনি চাইলে চিবিয়ে খেতে পারেন। চাইলে পানি দিয়ে গিলেও খেতে পারেন। খালি পেটে রসুন খাওয়া হাইপারটেনশন ও স্ট্রেস কমাতে সহায়তা করে, অন্যদিকে হজমের গণ্ডগোল রোধ করে।

স্ট্রেস থেকে পেটে গ্যাসের সমস্যা হলে সেটাও প্রতিরোধ করে খালি পেটে রসুন। অন্যদিকে পেটের গণ্ডগোল জনিত অসুখ, যেমন ডায়রিয়া হলে এই খালি পেটে রসুন দ্রুত তা সারিয়ে দেয়। সকালে খালি পেটে রসুন খাওয়া শরীরের রক্ত পরিশুদ্ধ করে ও লিভারের ফাংশন ভালো রাখতেও সহায়তা করে।

bottom