Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নিউক্যাসলের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ম্যানইউর হয়ে একটি করে গোল করেন লুকাকু ও রাশফোর্ড।


মরিনহোর বিদায়ের পর অন্তর্বর্তীকালীন কোচ ওলে গানার সোলসকায়ের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল ম্যানইউকে জয়ের ধারায় ফেরানো। মনে করিয়ে দেওয়া ম্যানইউ জিততে পারে। সেটা তিনি ভালোই পেরেছেন। ম্যানইউর কোচ হিসেবে নিজের প্রথম ম্যাচে কার্ডিফ সিটিকে হারিয়ে নিজে করলেন উড়ন্ত সূচনা। ইপিএলের সফলতম দল ফিরল জয়ের ধারায়। বুধবার রাতে সেটা অব্যাহত রাখল ইংলিশ ক্লাবটি। লুকাকু ও রাশফোর্ডের গোলে নিউক্যাসলের বিপক্ষে পেয়েছে ২-০ গোলের জয়। যে দল জয় কি জিনিস সেটা প্রায় ভুলেই গেছে। সে দলের হয়েই দায়িত্ব নেওয়ার পর ওলে গানার সোলসকায়ের এটা টানা চতুর্থ জয়।

নিউক্যাসলের মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে শেষ—আধিপত্য ধরে রাখে ম্যানইউ। বলের দখল নিয়ে একের পর এক আক্রমণে ওঠা পগবারা গোলের দেখা পাচ্ছিল না কোনোমতেই। প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধের ৬৪ মিনিটে এসে গোলের দেখা পায় ম্যানইউ। সেই অর্থে, ‘জয়ের জন্য ঘাম ঝরাতে হয়েছে ম্যানইউকে’ এটা বলা যেতেই পারে। দ্বিতীয়ার্ধে অতিথিদের রক্ষণে কাঁপন তোলে স্বাগতিকেরাই। ৬৩তম মিনিটে ম্যানইউর কোচ মার্শিয়ালকে তুলে নিয়ে লুকাকুকে মাঠে নামান। কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে খুব বেশি দেরি করেননি বেলজিয়ান এই স্ট্রাইকার। প্রথম ছোঁয়াতেই খুঁজে পান প্রতিপক্ষের জাল।
খেলা শেষের মিনিট দশেক আগে স্বাগতিকদের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকেন রাশফোর্ড। ৬৪তম মিনিটে এই রাশফোর্ডের ফ্রি-কিক ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে না পারার খেসারতই দিয়েছিলেন নিউক্যাসলের গোলরক্ষক। ৮০তম মিনিটে রাশফোর্ড নিজেই প্রতিপক্ষ জালের দেখা পান। ডি-বক্সের মধ্যে সানচেজের বাড়ানো বল নিখুঁত শটে জালে পাঠান রাশফোর্ড।
২১ ম্যাচে ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে মৌসুমে তালিকার ৬ নম্বরে আছে ম্যানইউ। সমান ম্যাচ খেলে ১৫ নম্বরে অবস্থান করা নিউক্যাসলের সংগ্রহ ১৮ পয়েন্ট। আর এক ম্যাচ কম খেলেও তালিকার শীর্ষে থাকা লিভারপুলের ঝুলিতে জমা আছে ৫৪ পয়েন্ট।

 

bottom