Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টের এক দিন আগে হঠাৎ ডান হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পেয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ব্যথা কিছুটা কমায় আজ তিনি অনুশীলন করেছেন। কাল তাঁর খেলা নিয়ে আশাবাদী বাংলাদেশ।


ডান হাতের বুড়ো আঙুলে ব্যান্ডেজটা আছে। ব্যথা কিছুটা কমায় সকালে ব্যাট হাতে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ড্রেসিংরুমের সামনে খানিকটা সময় ঝালিয়ে নিয়ে গেছেন শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের ইনডোরে। সকালে মুশফিকের ঘণ্টা খানেকের এই অনুশীলন স্বস্তি দিচ্ছে বাংলাদেশ দলকে।
এখনো পর্যন্ত দলের ভাবনাটা হচ্ছে, মুশফিক খেলবেন। প্রশ্ন হচ্ছে, তিনি শুধুই ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলবেন, নাকি উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে? দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছেন, এখনো পর্যন্ত আমি যতটুকু জানি যে মুশফিক ভাই খেলবেন এবং দুটিই করবেন। দলের ম্যানেজার আকরাম খানও বলেছেন একই কথা, ব্যথা অনেকটা কমেছে। কাল সকালেও দেখা হবে ব্যথা কতটা কমে। সেটির ওপর নির্ভর করবে মুশফিক দুটিই করবে কি না।

একই সঙ্গে দুটি সার্ভিস পাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে বলেই সাকিব জানিয়েছেন, বিকল্প হিসেবে জরুরিভাবে ডেকে আনা হচ্ছে বগুড়ায় বিসিএল খেলতে যাওয়া লিটন দাসকে, বিকল্প হিসেবে রাখা হচ্ছে লিটনকে। যদি (মুশফিকের) ব্যথাটা বাড়ে, ফোলা থাকে, কোনো অসুবিধা হয়, তাহলে আমাদের বিকল্প পরিকল্পনাটাও যেন থাকে। এ কারণেই লিটনকে আনা।

শেষ পর্যন্ত মুশফিক যদি কিপিং না-ই করতে পারেন, তবে লিটনকে কোথায় খেলানো হতে পারে, সেটিও ব্যাখ্যা করেছেন সাকিব, আমাদের ওপেনিং কারা করবে, এটা মোটামুটি জানি। যদি মুশফিক ভাই না কিপিং করতে পারে, সেটি ঘটার সম্ভাবনা খুবই কম, তাহলে লিটন কিপিং করবে। আর কিপিং করে ওপেন করাটা তাঁর জন্য খুবই কঠিন হবে।


লিটন যদি খেলেন এবং ওপেনিংয়ে না নামেন, একাদশের বাইরে চলে যেতে পারেন মোহাম্মদ মিঠুন।

bottom