Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ভারতে ভূপেন হাজারিকা সেতুর পর ব্রহ্মপুত্রের বুকে আরও একটি সেতুর উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। ডিব্রুগড়ের সঙ্গে ধেমাজি জেলার সংযোগকারী ‘সতী সাধ্বিনী’ নামের সেতুটি ২৫ ডিসেম্বর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আসাম ও অরুণাচল প্রদেশে রেল ও সড়ক যোগাযোগব্যবস্থার উন্নতিতে সেতুটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে।


এর আগে ব্রহ্মপুত্রের ওপর ‘ভূপেন হাজারিকা’ নামে ৯ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম রেলসড়ক সেতুর উদ্বোধন হয়।

উত্তর–পূর্ব সীমান্ত রেল সূত্র জানিয়েছে, ৪ দশমিক ৯৪ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ‘সতী সাধ্বিনী’ সেতুর নির্মাণকাজ শেষ। সেতুতে প্রথম স্তরে থাকছে রেলের ব্রডগেজ লাইন। ওপরতলায় হবে তিন লেনের সড়ক।

১৯৯৭ সালে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়া এই সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

২০০২ সালে সেতুটির কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় প্রয়াত সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারি বাজপেয়ির হাত ধরে। ২৫ ডিসেম্বর মোদির হাত ধরে যাত্রা শুরু হবে সেতুটির।

চীন সীমান্তবর্তী অরুণাচল প্রদেশের সঙ্গে সংযোগ রক্ষায় সেতুটি বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন উত্তর–পূর্বাঞ্চলের বিশিষ্ট সাংবাদিক সঞ্জীব দেব।

প্রথম আলোকে সঞ্জীব দেব বলেন, আসামের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের লোকজনের পাশাপাশি পাশের রাজ্য অরুণাচল প্রদেশের মানুষ উপকৃত হবেন। পাশাপাশি এই সেতু ভারতের নিরাপত্তাব্যবস্থাকে আরও মজবুত করবে। মনে রাখতে হবে, চীন সীমান্তবর্তী অরুণাচলের সঙ্গে ভারতের মূল ভূখণ্ডের সড়ক ও রেল যোগাযোগ বিশেষ জরুরি।

 

bottom