Foto

Please Share If You Like This News


Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ভারতের আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীদের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরত জাহান। নতুন এই ভূমিকাকে খুব সহজভাবেই নিচ্ছেন এই তারকা। রাজনীতিতে পা রাখাটা আসলে বাড়ির কাজের মতোই একটা কাজ বলে মন্তব্য করলেন তিনি।


Hostens.com - A home for your website

নুসরত বলেন, ’বাড়ি সামলানো এবং সিনেমার শুটিং করা এই দুটো কাজই ছিল এতদিন ধরে আমার ফুল টাইম জব। এ বার আমার মনে হয় মানুষের জন্য কাজ করার সময়। যে কোনও দুটো বিষয়কেই একসঙ্গে সামলানো কিছুটা কঠিন হয়, কিন্তু অসম্ভব হয় না।

গত মঙ্গলবার ভারতের উত্তরবঙ্গের ২৪ পরগনার বসিরহাট লোকসভা আসনে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পরে এমন কথাই বলেন নুসরত।

আঠাশ বছর বয়সী অভিনেত্রী আরও বলেন, ’তরুণ প্রজন্ম এখন জীবনের কঠিনতম কাজগুলোকেও যথেষ্ট দক্ষতার সঙ্গে সামলাতে পারে। ’ যে ভাবে তিনি নিজের বাড়ি এবং সিনেমার ক্যারিয়ার সামলাচ্ছেন, তার পরে এই নতুন কর্তব্যও তিনি ভালভাবেই আগলাতে পারবেন বলে বিশ্বাস করেন অভিনেত্রী।

নুসরত বলেন, ’আমরা যখন কোনো সিনেমার শুটিং শুরু করি, প্রথমে একটু নার্ভাস লাগে। তার মানে এই নয় যে রাজনৈতিক জীবন নিয়ে আমি খানিকটা নার্ভাস। তবে হ্যাঁ, এটা একটা বড় দায়িত্ব ঠিকই। এই দায়িত্ব আমাকে পূরণ করতেই হবে।’

নুসরতের মতে, ’মানুষ এত দিন আমার সিনেমা ভালোবেসেছেন। এবার আমার দায়িত্ব জনপ্রতিনিধি হিসেবে তাদের সেই ভালোবাসা ফিরিয়ে দেওয়া এবং কর্তব্যে অবিচল থাকা।’

নাগরিকদের জন্য কি কোনো বার্তা রয়েছে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নুসরত বলেন, ’এখন শুধু এটুকুই প্রত্যাশা করবো, আমি যখন মানুষের জন্য কাজ করব তারা যেন আমার পাশে থাকেন। ঠিক যে ভাবে এত দিন তারা আমার সিনেমার পাশে থেকেছেন।’

নুসরত বিশ্বাস করেন না যে, একজন অভিনেতার অভিনয় জীবনকে শেষ করে দিতে পারে রাজনীতি অথবা অভিনেতার জীবনের ব্যস্ত শিডিউল থেকে বেশ কয়েকটা দামি ঘণ্টাকেও রাজনীতি কেড়ে নিতে পারে।

তিনি বলেন, ’এগুলো প্রায় ২৫ বছর পুরনো সব ধারণা। তরুণ প্রজন্ম প্রত্যেকটা উন্নয়নের বিষয়ে সচেতন, তাই এ ধরনের ধারণা আজকাল অচল। আমার সিনেমার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে গিয়েছে বলে আমি রাজনীতিতে ঢুকছি তেমনটা তো ঘটেনি।’

Report by - //dailysurma.com

Facebook Comments

bottom