Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

আয়কর মেলায় পাঁচ দিনে এক হাজার ৫৫৮ কোটি টাকার বেশি কর আদায় হয়েছে। রিটার্ন জমা দিয়েছেন প্রায় সাড়ে তিন লাখ করদাতা। কর সংক্রান্ত সেবা নিয়েছেন সাড়ে ১১ লাখ মানুষ। এই পাঁচ দিনে গতবারের মেলার প্রথম পাঁচ দিনের চেয়ে করের পরিমাণ বেড়েছে প্রায় ৬ শতাংশ। রিটার্ন জমার পরিমাণ বেড়েছে ৭০ শতাংশ। আর সেবা নিয়েছেন ৩৮ শতাংশের বেশি মানুষ। মেলার সমন্বয়কারী এবং এনবিআর সদস্য জিয়া উদ্দিন মাহমুদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ সব তথ্য জানিয়ে বলেন, শনিবার সরকারি ছুটির দিনে মেলা প্রাঙ্গন করদাতা এবং সেবা গ্রহীতাদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয়েছিল। সকাল থেকেই মেলায় উৎসবের আবহ নেমেছিল।


Hostens.com - A home for your website

পঞ্চম দিন শনিবার দেশের আটটি বিভাগ, ৫২টি জেলা এবং ১৩টি উপজেলাসহ মোট ৭৩টি স্পটে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

জিয়া উদ্দিন বলেন, রাজধানী ঢাকার মতোই সারা দেশে করদাতারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কর প্রদান ও সেবা গ্রহণ করেছেন। বিশেষ করে পেশাজীবী, চাকুরিজীবী, তরুণ ও নারী করদাতা, অনলাইন রিটার্ন দাখিল বুথে করদাতাদের সরব উপস্থিতি ছিল।

এনবিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, পঞ্চম দিনে ২৯০ কোটি ৫২ লাখ ৯৩ হাজার ৭০৮ টাকার কর আদায় হয়েছে।

রিটার্ন জমা দিয়েছেন ৮১ হাজার ৫৯৯ জন। সেবা নিয়েছেন ২ লাখ ৪৮ হাজার ৯১৭ কোটি টাকা। নতুন ইটিআইএন নিয়েছেন ৫ হাজার ৪৮৮ জন।

কর সচেতনতা বাড়াতে শনিবারও অনুষ্ঠিত হয়েছে কর শিক্ষণ ফোরাম। এতে নটরডেম কলেজের ৪০ শিক্ষার্থী অংশ নেয়। তাদের মধ্যে কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতায় ১০ জন শিক্ষার্থীকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।কুইজ বিজয়ী প্রথম তিনজন শিক্ষার্থীকে পুরস্কার হিসাবে প্রাইজবন্ড, সনদপত্র ও বই প্রদান করা হয়।

এছাড়া বিজয়ী ১০ জন শিক্ষার্থীকে সনদপত্র ও বই দেওয়া হয়। পাশাপাশি নটরডেম কলেজকে সনদপত্র দেওয়া হয়।

২০১০ সাল থেকে শুরু হওয়া আয়কর মেলার পরিধি এবং মেলার মাধ্যমে আয়কর বিভাগের সেবার পরিসর বাড়ছে। ২০১৮ সালে দেশব্যাপী সর্বাধিকসংখ্যক ভেন্যুতে আয়কর মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

১৩ নভেম্বর রাজধানীর বেইলী রোডে অফিসার্স ক্লাবে মেলার উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মহিত।

মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইন গ্রহণ (নতুন ও পুরাতন), ই-পেমেন্ট, ই-ফাইলিং, ই-পেমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলায় আসা মুক্তিযোদ্ধা, নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য রয়েছে আলাদা বুথ।

মেলায় করদাতাদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য রাজধানীর টিএসসি, রামপুরা, বেইলি রোড, মতিঝিল, মিরপুর ও উত্তরা থেকে ১৫টি শাটল বাস নিয়োজিত রয়েছে।

bottom