Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

নিজের একতারাটি উঁচু করে দেখালেন সাত‍্যকি ব‍্যানার্জী। বললেন, এটি নাকি তাঁর ‘দুই বছর বয়সী মামা’র! মঞ্চে বসেই গাইলেন তিনি, ‘আমার একলা নিতাই’। একপর্যায়ে অবশ‍্য তুলে নিলেন দোতারা। আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসবে এভাবেই গাইলেন কলকাতার শিল্পী সাত‍্যকি ব‍্যানার্জী।


বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে তিন দিনের ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব-২০১৮। লোকগানের সঙ্গে নৃত্যদল ভাবনার নাচ দিয়ে শুরু হয় আন্তর্জাতিক এ উৎসব। এরপর মঞ্চে আসেন ঢাকার আবদুল হাই দেওয়ান। এ দুই পরিবেশনার মধ্যবর্তী বিরতিতে একটু ঝিমিয়ে পড়েছিলেন দর্শকেরা। তাঁদের জাগিয়ে তুলল পোল্যান্ডের গানের দল দিকান্দা। অচেনা সুর, অচেনা সুরযন্ত্র আর শিল্পীদলের মুখে ভাঙা ভাঙা বাংলায় শুভেচ্ছাবাণী শুনে রোমাঞ্চিত হয়েছেন ঢাকার দর্শকেরা। গানে তাদের জিপসি প্রভাব। মূলত তাদের পরিবেশনার মধ‍্য দিয়ে টের পাওয়া যায় উৎসবের আবহ।

প্রধান অতিথি হিসেবে উৎসবের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। সংগীতকে সুন্দর করে উপস্থাপন করার জন‍্য আয়োজকদের ধন‍্যবাদ দেন তিনি। প্রত‍্যাশা করেন এ তিন রাত সুরে ডুববেন এবং ভাসবেন শ্রোতারা।

বিশেষ অতিথি আসাদুজ্জামান নূর বলেন, হাজার বছরের লোকসংগীত ধারণ করছে তরুণেরা। তারুণ‍্য ও যৌবনকে অভিনন্দন।

উৎসবে স্বাগত বক্তব্য দেন সান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী। এমন অনুষ্ঠান আয়োজনের পরিবেশ ‍সৃষ্টি করে দেওয়ার জন‍্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন‍্যবাদ দেন তিনি। তিনি জানান, কেবল এ উৎসব করেই শেষ নয়, লোকশিল্পীদের প্রাপ‍্য নিশ্চিত করতেই সান ফাউন্ডেশন গঠন করেছেন তারা।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন গ্রামীণফোনের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান, ঢাকা ব‍্যাংকের প্রধান নির্বাহী মাহবুবুর রহমান ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন।

সান কমিউনিকেশনের চতুর্থবারের এ আয়োজন ছিল বেশ গোছানো। সন্ধ্যা থেকে দর্শক কিছুটা কম থাকলেও রাত সাড়ে ৮টার ভরে ওঠে আর্মি স্টেডিয়াম। আজকের রাতে সংগীত পরিবেশন করবেন ভারতের পদ্মশ্রী সম্মাননা পাওয়া পাঞ্জাবের শিল্পী পূরণচন্দ্র ওয়াদালি। এই আয়োজনে আগামীকাল শুক্রবার গান করবেন ভারতের রঘু দীক্ষিত, যুক্তরাষ্ট্রের লস টেক্সাম‍্যানিয়াক, বাহরাইনের মাজায, বাংলাদেশের স্বরব‍্যাঞ্জ এবং মমতাজ।

উৎসবটির পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে স্কয়ার। উৎসবটি সরাসরি দেখা যাবে মাছরাঙা টেলিভিশনে। আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেন সংগীতা ও হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল।

bottom