Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই ভারতের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলছেন পাকিস্তানি পেসাররা। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে গেল ১৫ সেপ্টেম্বর সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে পর্দা উঠেছে এশিয়া কাপের ১৪তম আসরের। টুর্নামেন্ট শুরু পর তিন দিন পেরিয়ে গেলেও আজই প্রথম মাঠে নামতে যাচ্ছে ভারত। ১৮ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার হংকংয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ভারতের এশিয়া কাপ মিশন। পরের ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের প্রতিপক্ষ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তান। এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে ১৪ মাস পর আবারও ভারত-পাকিস্তানের দ্বৈরথ দেখার সুযোগ পাচ্ছেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগেই ভারতের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলছেন পাকিস্তানি পেসাররা। বিশেষ করে বাঁহাতি পেসারদের নিয়ে বেশি চিন্তিত রবি শাস্ত্রীর শিষ্যরা।


মোহাম্মদ আমির, উসমান খান, জুনায়েদ খানের মতো বাঁহাতি পেসারদের সামলাতে ইতোমধ্যেই ব্যবস্থা নিয়েছে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। পাকিস্তানের বাঁহাতি পেসারদের সামলাতে বাঁহাতি থ্রো ডাউন বিশেষজ্ঞকেও উড়িয়ে এনেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। নিয়োগ দিয়েছে লঙ্কান কোচ নুয়ান সেনেভিরত্নেকে।

ভারতের সঙ্গে সেনেভিরত্নের এটাই প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট নয়। এর আগে শ্রীলঙ্কা সফরে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের বল থ্রো-ডাউন অনুশীলন করিয়েছেন তিনি। মাত্র দুটি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেললেও ৩৮ বছর বয়সী শ্রীলঙ্কার এই ফিল্ডিং কোচকে তখন পছন্দ হয়েছিল ভারতের টিম ম্যানেজমেন্টের। পাশাপাশি তার থ্রো-ডাউন নিয়ে সন্তুষ্ট ছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ইতোমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন সেনেভিরত্নে। দুবাই স্পোর্টস একাডেমিতে নিয়ে কাজ করেছেন রোহিত শর্মাদের নিয়ে। আর প্রথম দিনের অনুশীলনের শেষে সেনেভিরত্নের কাজ নিয়ে খুশি এশিয়া কাপের মঞ্চে ভারতকে নেতৃত্ব দেওয়া রোহিত শর্মা।

সেনেভিরত্নেকে নিয়ে ভারতীয় এই ওপেনার বলেন, বাঁ হাতে সে দারুণ বল ছোড়ে। আমাদের দলে দুজন আছে। কিন্তু ওরা ডান হাতে থ্রো ডাউন করায়। নুয়ান আসায় খুব লাভ হলো।

সেনেভিরত্নেকে মূলত এশিয়া কাপের জন্য খণ্ডকালীন চুক্তিতে নিয়োগ দিয়েছে বিসিসিআই। তবে ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, লঙ্কান এই থ্রো ডাউন বিশেষজ্ঞের চুক্তির মেয়াদটা আরও বাড়তে পারে। এশিয়া কাপের পর বছরের শেষ দিকে অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে যাবে ভারত। অজি পেসারদের সামলাতে তার থ্রো-ডাউন কাজে আসবে বলে মনে করছে দেশটির গণমাধ্যম।

bottom