Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

উন্নত জীবনযাপনের জন্য অনেক মানুষ নিজ দেশে ছেড়ে পরদেশে পাড়ি জমায়।যারা উন্নত জীবনযাপনের জন্য ভিন্ন দেশে বসবাস করতে চান তাদের জন্য দুয়ার খুলল কানাডা।উত্তর আমেরিকা মহাদেশের এই দেশটিকে বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ বলা হয়। দেশটির আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা খুবই কম। দেশটিতে বর্তমানে ৩ কোটি ৭০ লাখের মতো মানুষ বসবাস করে। মাথাপিছু ইনকাম প্রায় ৫০ হাজারের কাছাকাছি।


Hostens.com - A home for your website

জানা যায়, কানাডা সরকার ২০১৭ সালের নভেম্বর মাসে আগামী ৩ বছরে (২০১৮, ২০১৯, ২০২০) ৯ লাখ ৮০ হাজার অভিবাসী নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। ঘোষণার ধারাবাহিকতা অনুযায়ী কানাডা সরকার ২০১৯ সালে ৩ লাখ ৩০ হাজার অভিবাসী নেবে।

ইকোনমিক প্রোগ্রামের অধীনে ১ লাখ ৯১ হাজার ৬০০ জন। ইকোনমিক প্রোগ্রামের সাব ক্যাটাগরি হচ্ছে- ফেডারেল হাই স্কিলড প্রোগ্রামে ৮১,৪০০ জন, আটলান্টিক ইমিগ্রেশন পাইলট প্রোগ্রামে ২,০০০ জন, ফেয়ার গিভার প্রোগ্রামে ১৪,০০০ জন, ফেডারেল বিজনেস প্রোগ্রামে ৭০০ জন, প্রভিন্সিয়াল নমিনি প্রোগ্রামে ৬১,০০০ জন, কুইবেক স্কিলড ওয়ার্কার অ্যান্ড বিজনেস প্রোগ্রামে ৩২,৫০০ জন।

ফ্যামিলি প্রোগ্রামের অধীনে ৮৮,৫০০ জন। ফ্যামিলি প্রোগ্রামের সাব ক্যাটাগরি হচ্ছে- স্পাউজ, পার্টনার ও চিলড্রেন প্রোগ্রামে ৬৮,০০০ জন, প্যারেন্টস ও গ্রান্ড প্যারেন্টস ২০,৫০০ জন, রিফিউজি অ্যান্ড প্রোটেক্টেড পারসন প্রোগ্রামে ৪৫,৬৩০ জন, হিউম্যানিটেরিয়ান প্রোগ্রামে ৪,২৫০ জন।

পূর্বের ঘোষণা অনুযায়ী, ২০২০ সালে কানাডা সরকার ৩ লাখ ৪০ হাজার অভিবাসী নেবে। কানাডার বর্তমান অভিবাসন মন্ত্রী আহমেদ হুসেন ইতোমধ্যে ২০২১ সালে আরও ৩ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নেওয়ার ব্যাপারে ঘোষণা দিয়েছেন। আগ্রহীরা এখনই আবেদনের জন্য প্রস্তুতি নিতে পারেন।

bottom