Foto

Please Share If You Like This News


Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

দেশের ১ হাজার ৩০০ তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণার্থীর হাতে একটি করে ল্যাপটপ তুলে দিয়েছে সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ। বিভাগের লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রকল্প ও সারা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন প্রকল্পের আওতায় গতকাল রোববার আইসিটি টাওয়ারে বিসিসি মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই ল্যাপটপ তুলে দেওয়া হয়।


Hostens.com - A home for your website

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, দেশের ৬৫০টি ব্যাচের প্রতি ব্যাচে দুই প্রশিক্ষণার্থী এবং আটটি বিভাগের ২৫ জন সেরা প্রশিক্ষণার্থীকে গতকাল ল্যাপটপগুলো তুলে দেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। অনুষ্ঠানে দেশের ১ হাজার ২০০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে কম্পিউটার দেওয়ার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আগামী দুই বছরের মধ্যে দেশের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আইসিটি ল্যাব ও মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন করা হবে। এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে শিক্ষকেরা নিজেদের ডিজিটাল শিক্ষার উপযোগী করে গড়ে তুলতে হবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জুয়েনা আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের নতুন প্রজন্ম অত্যন্ত মেধাবী। তাই শিক্ষাজীবনের শুরু থেকে তাদের আইসিটি বিষয়ে জ্ঞান দিতে হবে। তিনি প্রাথমিক শিক্ষাস্তরে আইসিটি শিক্ষাকে বাধ্যতামূলক করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, ৪০ বছরের কম বয়সীদের ডিজিটাল দক্ষতা অর্জন হবে বড় চ্যালেঞ্জ।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে ৪ হাজার ৫০০ ইউনিয়নকে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের আওতায় আনা হবে। গত ১০ বছরে দেশ দ্রুত এগিয়ে গেছে। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে না পারলে জাতি পিছিয়ে পড়বে। তিনি বিশ্ব জয়ের হাতিয়ার ল্যাপটপের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেদের দক্ষ করে তোলার আহ্বান জানান।

Report by - //dailysurma.com

Facebook Comments

bottom