Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ওজন বাড়লে সবাই কমবেশি চিন্তিত হয়ে পড়েন। ওজন কমাতে চাইলেও অনেকের পক্ষে তা সম্ভব হয় না। কারণ খাওয়া, জীবনযাপন পদ্ধতি, ঘুম-সব কিছুর উপরই ওজন কমা বা বাড়া নির্ভর করে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ওজন নিয়ন্ত্রণের একটা বড় অংশ নির্ভর করে রাতের খাবারের পরিমাণ, উপাদান এবং সময়ের উপর ।


এ কারণে রাতের খাবারের ক্ষেত্রে কিছু বিষয় মেনে চলা জরুরী। যেমন-

ভারী খাবার এড়িয়ে চলুন: বিশেষজ্ঞদের মতে, রাতের খাবার খুব বেশী ভারী হওয়া ঠিক নয়। কারণ দিন যত বাড়তে থাকে শরীরের বিপাক ক্ষমতা তত কমতে শুরু করে।বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রাতে অপেক্ষাকৃত হালকা খাবার খেলে তা হজমে সহায়তা করে।সেই সঙ্গে ওজন হ্রাসেও ভূমিকা রাখে। এছাড়া ঘুমানোর অন্তত তিন ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেলে তা তাড়াতাড়ি হজম হয়।

লবণ কমান: অতিরিক্ত পরিমাণে লবণাক্ত খাবার খেলে, বিশেষ করে রাতে বা সন্ধ্যায় এ ধরনের খাবার খেলে তা শরীরে পানির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। এ কারণে রাতের খাবারে সোডিয়ামের পরিমাণ সীমিত করুন।

টক খাবারের পরিমাণ সীমিত করুন: রাতের খাবারে ভিনেগার মিশ্রিত বা টক জাতীয় খাবার থাকলে তা শরীরে পানির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। এজন্য এসময় এমন সব খাবার অন্তর্ভুক্ত করা উচিত যা স্বাদের ভারসাম্য বজায় রাখে এবং খুব টক বা লবণাক্ত না হয়।

প্লেটের আকার দেখুন: যদি আপনার প্লেটের আকার বড় হয় তাহলে আপনার মনে হবে প্লেটে পর্যাপ্ত খাবার নেই। এ কারণে ছোট প্লেট নিন। তাতে খাবার অল্প থাকলেও প্লেট ভরা থাকবে। আপনারও মনে হবে পর্যাপ্ত খাবার খেয়েছেন।

bottom