Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

রাশিয়ায় সাবেক সুন্দরী প্রতিযোগিতার মুকুট জয়ী ওকসানা ভোয়েভোদিনা ইসলাম গ্রহণ করে বিয়ে করেছেন মালয়েশিয়ার কেলানতান রাজ্যর রাজা মুহাম্মাদ ভিকে। তাঁকে বিয়ে করার ফলে তিনি মালয়েশিয়ার বর্তমান রানি হয়েছেন। পঞ্চম রাজা ভি–র পুরো নাম টেংকু মো. ফারিস পেট্রা ইবনি টেংকু ইসমাইল পেট্রা। তিনি মোহাম্মদ ভি নামে পরিচিত।


অর্থনীতিতে স্নাতোকত্তর ওকসানা একজন মডেল। বছর দেড়েক আগে ওকসানার সঙ্গে ইউরোপে রাজার পরিচয়। এ বছরের নভেম্বরের ২২ তারিখে তাঁদের বিয়ে হয়। বিয়ের পরই প্রজনন স্বাস্থ্যর চিকিৎসার ব্যাপারে জার্মানি উড়াল দিয়েছেন নবদম্পতি। প্রথম বিয়ের পরই রাজার বিচ্ছেদ হয়েছে। রাজার কোনো সন্তান নেই। তাই জার্মানির ওই হাসপাতালে গেছেন রাজা।
ওকসানা ইসলাম গ্রহণের পরই রিহানা নাম নেন। মালেয়শিয়ার গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এ বছরের ১৬ এপ্রিল ইমলাম গ্রহণ করেন। বিয়ের পর তাঁর নাম হয়েছে রিহানা ওকসানা গরবাতেনকো।

২০১৫ সালে ২২ বছর বয়সে মিস মস্কো নির্বাচিত হন ওকসানা। এর তিন বছর পরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন। রাজার বয়স তাঁর বয়সের দ্বিগুন, ৪৯ বছর। দম্পতির বয়সের পার্থক্য ২৪ বছর।

ওকসানা চিকিৎসক বাবার সন্তান। তিনি দক্ষিণ রাশিয়ার রোস্তভ অন ডনের একজন অর্থোপেডিক শল্যবিদ, বয়স ৫০–এরও কম। ওকসানার মাও রাশিয়ার পেঞ্জার আঞ্চলিক সুন্দরী প্রতিযোগিতার ১৯৯০ সালের একজন প্রতিযোগী ছিলেন।
মস্কোতে মালয়েশিয়ার রাজকীয় পোশাকে ৪৯ বছর বয়সী ভিকে রাজকীয় বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে দেখা যায়। বিয়ের অনুষ্ঠানটি পুরোপুরিভাবে অ্যালকোহলমুক্ত রাখা হয় এবং সম্পূর্ণ হালাল খাবার পরিবেশন করা হয়।

রাজকীয় কনে হওয়ার আগে ওকসানা বলেছিলেন, আমি যখন স্কুলে পড়তাম তখন আমি একরকম দস্যু ছিলাম। আমি কিছু স্কেটার, মোটরবাইক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী পুরুষদের পছন্দ করতাম।

তবে রাজার সঙ্গে কীভাবে সম্পর্ক বা কীভাবে পরিচয় এরপর বিয়ে, তা এখনো অজানা। ওকসানার এটি প্রথম বিয়ে কি না, তা–ও জানা যায়নি। তবে রাজার দ্বিতীয় বিয়ে।
একসময়ের ফ্যাশন ডিজাইনার হতে চাওয়া ওকসানা এর আগে বলেছেন, আমি আমার স্কুলে, আমার ক্লাসে সবচেয়ে লম্বা ছিলাম, এমনকি সবচেয়ে স্লিমও ছিলাম। কিন্তু এ নিয়ে আমি সামান্যই উদ্বিগ্ন ছিলাম। যখন আমি কলেজে উঠলাম, তখন উপলব্ধি করতে সক্ষম হলাম যে এটাই আমার শক্তির দিক। তরুণ–যুবকেরা আমায় দেখে আকৃষ্ট হতে শুরু করল এবং আমি লক্ষ করলাম, তারা আমার দিকে তুলনামূলকভাবে একটু মোটা ও খাটো মেয়ের চেয়ে বেশি নজর দিত।
মালয়েশিয়ার একটি রাজ্যের প্রধান ব্রিটেনের রুটল্যান্ডের ওয়াখাম স্কুল থেকে পাস করে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। এরপরে তিনি ইউরোপিয়ান বিজনেস স্কুল, লন্ডনে পড়াশোনা করেন।

bottom