Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

কাশ্মীরের পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার ঘটনা রাজনীতি-কূটনীতির সীমানা ছাড়িয়ে প্রভাব ফেলছে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট সম্পর্কেও। গতকাল ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়ার (সিসিআই) সচিব আসন্ন বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বয়কটের দাবি তুলেছিলেন। আজ সেই দাবিতে সম্মতি প্রকাশ করলেন ভারতের সাবেক স্পিনার হরভজন সিং।


কাশ্মীরের জঙ্গি হামলার ঘটনায় দেশব্যাপী চলতে থাকা পাকিস্তানবিরোধী প্রতিবাদে তাল মিলিয়েছে ভারতের ক্রিকেটাঙ্গন। মুম্বাই, পাঞ্জাবের স্টেডিয়ামে পাকিস্তানি কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের ছবি সরানো থেকে শুরু করে পিএসএলের সম্প্রচার বন্ধ করা—সম্ভাব্য সবভাবেই প্রতিবাদ করছে ভারত। এখন দাবি উঠেছে আসন্ন বিশ্বকাপে অনুষ্ঠিতব্য ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ বয়কট করার। গতকাল সিসিআইয়ের সচিব সুরেশ বাফনার তোলা সে দাবির সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন সাবেক ভারতীয় স্পিনার হরভজন সিংও।

দেশের স্বার্থে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটা বয়কট করুক ভারত, দরকার হলে ওয়াকওভার দিয়ে দিক, এমনটাই চাচ্ছেন হরভজন, ’বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কোনোভাবেই খেলা উচিত নয় আমাদের। আমাদের দলের যা শক্তি, তাতে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তিন পয়েন্ট না পেলেও আমরা বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হতে পারব। তিন পয়েন্ট গেলে যাক।’

শুধুই ক্রিকেট নয়, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সব রকমের সম্পর্কচ্ছেদ করার দাবি তুলেছেন তিনি, ’সবার আগে দেশ। আমাদের সৈন্যরা বারবার মারা যাচ্ছে। শুধু ক্রিকেট কেন, পাকিস্তানের সঙ্গে কোনো খেলাই খেলা উচিত না। ওদের সঙ্গে কোনো রকম সম্পর্ক রাখার প্রয়োজন নেই আর। সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্যের পাশে আছি আমরা। ওদের আত্মত্যাগ যেন বৃথা না যায়।’

হরভজন আশা করছেন, পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দেবে তাঁর দেশ, ’কঠিন সময়ের ভেতর দিয়ে যাচ্ছি আমরা। যা ঘটেছে, তা অন্যায়, অবিশ্বাস্য। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আমাদের সরকার অবশ্যই কোনো কঠিন ব্যবস্থা নেবে।’

কিন্তু হরভজনদের দাবি কি আদৌ মানা হবে? এ বিষয়ে আইপিএলের সভাপতি রাজীব শুক্লাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি একটু কূটনৈতিকভাবে জবাব দেন, ’ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে আমরা অংশ নেব কি না, সেই সম্পর্কে এখনই বলতে পারছি না। বিশ্বকাপের এখনো অনেক দেরি আছে। দেখি, কী হয়।’ তবে ভারত সরকারের সম্মতি ছাড়া যে পাকিস্তানের সঙ্গে কোনো দ্বিপক্ষীয় ক্রিকেট সিরিজে অংশ নেবে না ভারত, এটা বেশ স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি, ’আমাদের অবস্থান পরিষ্কার। সরকার না বললে আমরা পাকিস্তানের সঙ্গে খেলব না। সবকিছুর ওপরে খেলাধুলা, সেটা ঠিক আছে, কিন্তু দেশ যখন সন্ত্রাসবাদী হামলায় আক্রান্ত হয়, তার প্রভাব খেলাধুলাতেও পড়ে।’

নিজেদের কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের ছবি সরিয়ে ফেলা হচ্ছে, ঢেকে ফেলা হচ্ছে—তাই খুশি নয় পাকিস্তানও। পাল্টা বিবৃতি দিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছে, পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের ছবি যেভাবে ঢেকে দেওয়া হয়েছে বা সরিয়ে দেওয়া হয়েছে, তাতে তারা সন্তুষ্ট নয়। এ মাসে অনুষ্ঠিতব্য আইসিসির বৈঠকে তারা বিষয়টা নিয়ে ভারতীয় বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলবে বলেও জানিয়েছে পিসিবি।

bottom