Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

উচ্চ আদালতে বিচারাধীন মামলার বিষয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ না করার বিষয়ে নতুন বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট সবসময় সংবাদপত্রের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। আদালতের ভাবমূর্তি ও মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হয় এবং বিচারকাজ প্রভাবিত করে, এমন সংবাদ পরিবেশন ও প্রচার প্রত্যাশিত নয়।


মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ড. মো. জাকির হোসেনের স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ১৬ মে জারি করা ২৪৭/২০১৯ নম্বর বিজ্ঞপ্তি স্পষ্ট করা হলো এবং বিষয়টি সংশ্নিষ্ট সবাইকে অবহিত করা হলো।

বিচারাধীন মামলা নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ না করার বিষয়ে এর আগে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের জারি করা বিজ্ঞপ্তিটি স্পষ্ট করতে নতুন এ বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়।

গত ১৬ মে হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার মো. গোলাম রব্বানী স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, ইদানীং কোনো কোনো ইলেকট্রনিক মিডিয়া তাদের চ্যানেলে কোনো কোনো প্রিন্ট মিডিয়া তাদের পত্রিকায় বিচারাধীন মামলা-সংক্রান্ত বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন/স্ক্রল করছে, যা একেবারেই অনভিপ্রেত। এ আবস্থায় বিচারাধীন কোনো বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন/স্ক্রল করা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্নিষ্ট সবাইকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনের অনুরোধ সংবলিত এ বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহারের অনুরোধ জানিয়ে ওই দিন সন্ধ্যায় প্রধান বিচারপতির কাছে চিঠি দেয় ল রিপোর্টার্স ফোরাম (এলআরএফ)।

চিঠিতে বলা হয়, ওই বিজ্ঞপ্তি স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিপন্থি। পরে বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে), ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) ও এডিটরস গিল্ড এই বিজ্ঞপ্তি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে আলাদা আলাদা বিবৃতি দেয়। একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের ওই বিজ্ঞপ্তি প্রত্যাহারের জন্য সংশ্নিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানানো হয়।

এ অবস্থায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের বলেন, আপনারা শিগগিরই এ বিষয়ে (বিচারাধীন মামলার সংবাদ পরিবেশন) একটি ব্যাখ্যা পাবেন। তার এই বক্তব্যের পরদিন গতকাল সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করল।

bottom