Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

বিএনপির সংশোধিত গঠনতন্ত্র নিয়ে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা প্রতিপালন করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এক মাসের মধ্যে এ–সংক্রান্ত আবেদন নিষ্পত্তি করবে ইসি। এই সময়ের মধ্যে ৭ নম্বর ধারা সংশোধন করে ইসিতে জমা দেওয়া বিএনপির গঠনতন্ত্র গ্রহণ করবে না ইসি।


আজ সোমবার ইসি এই সিদ্ধান্ত নেয়। ইসি সচিবালয়ের সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ প্রথম আলোকে বলেন, আদালতের দুটি নির্দেশনা ছিল, বিএনপির সংশোধিত গঠনতন্ত্র গ্রহণ না করা এবং এক মাসের মধ্যে আবেদন নিষ্পত্তি করা। নির্বাচন কমিশন আদালতের নির্দেশনা প্রতিপালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইসির এই সিদ্ধান্ত আবেদনকারী, বিএনপি ও আদালতকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।

দণ্ডিত, দেউলিয়া, উন্মাদ ও সমাজে দুর্নীতিপরায়ণ বা কুখ্যাত বলে পরিচিত ব্যক্তি কমিটির সদস্যপদের অযোগ্য বিবেচিত হবেন—এমন বিধান (গঠনতন্ত্রের ধারা-৭) বাদ দিয়ে গঠনতন্ত্রে সংশোধনী এনেছিল বিএনপি। চলতি বছরের জানুয়ারির শেষের দিকে সংশোধিত গঠনতন্ত্র ইসিতে জমা দেয় বিএনপি।

গত ৩০ অক্টোবর বিএনপির সংশোধিত ওই গঠনতন্ত্র অনুমোদন না করার জন্য ইসিতে আবেদন করেন ঢাকার মিরপুর-১৩-এর কাফরুলের বাসিন্দা মো. মোজাম্মেল হোসেন। তিনি নিজেকে বিএনপির আদর্শে উজ্জীবিত একজন কর্মী বলে দাবি করেন। সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে এর আগে ২৮ অক্টোবর তিনি রিট করেন। গত ৩১ অক্টোবর এই রিটের পরিপ্রেক্ষিতে আদেশ পাওয়ার দিন থেকে এক মাসের মধ্যে ইসিতে করা মোজাম্মেল হোসেনের আবেদনটি নিষ্পত্তি করতে ইসিকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এই সময় পর্যন্ত বিএনপির সংশোধিত গঠনতন্ত্র গ্রহণ না করতে নির্বাচন কমিশনকে অন্তর্বর্তীকালীন নির্দেশ দেন আদালত।

bottom