Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

চলতি বছরের মধ্যেই একটি প্রকৃত নির্বাচন চান গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। কারচুপি ও ভোট ডাকাতির অভিযোগ তুলে সাম্প্রতিক সংসদ নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই শীর্ষ নেতা বলেছেন, আগের রাতে ভোটে ক্ষমতা দখল করা মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি প্রতারণা।


মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত গণফোরামের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংবিধানের অন্যতম প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, স্বাধীনতা দিবসে তিনি সংঘাত-সংঘর্ষ নয়, শান্তি চান। ইতিবাচক কথা বলতে চান। সরকারের উদ্দেশে বলেন, ’এখন তো কয়েক মাস হয়েছে। দ্রুত নির্বাচনের একটা কর্মসূচি ঘোষণা করুন। তিন মাস-ছয় মাস যাই হয়– এই বছরের মধ্যে প্রকৃত অর্থে অবাধ-নিরপেক্ষ নির্বাচন করে নির্বাচিতদের কাছে ক্ষমতা বুঝিয়ে দিন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কেন জনগণকে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন, তা জানতে চেয়ে ড. কামাল বলেন, ’আপনারা আমাকে ভোট দিয়ে পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত করেছেন– এই কথা কেন বলছেন? কাল্পনিক জিনিসের ওপরে ১৬ কোটি মানুষের দেশকে শাসন করার ক্ষমতা দাবি করা দায়িত্বহীন কাজ।’

তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তিকে ক্ষমতায় বসাতে শহীদরা জীবন দেননি। তারা জীবন দিয়েছেন জনগণকে ক্ষমতার মালিক করতে। সংবিধানকে উপেক্ষা করে সরকার দাবি করছে, তারা পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকবে।

গণফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশতাক আহমেদের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আবু সাইয়িদ, রেজা কিবরিয়া, মোকাব্বির খান, জগলুল হায়দার আফ্রিক, আমসা আমীন প্রমুখ।

আলোচনা সভার পর নিজে সদস্য ফরম পূরণ করে দলের সদস্যপদ নবায়ন কর্মসূচির উদ্বোধন করেন ড. কামাল হোসেন।

bottom