Foto

Please Share If You Like This News


Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় 'ফণি' মোকাবেলায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে খুলনা জেলা প্রশাসন। খুলনা জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় ফণি মোকাবেলায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে একটি এবং ৯টি উপজেলায় ৯টি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। খুলে দেয়া হয়েছে ২৫০টি সাইক্লোন শেল্টার।


Hostens.com - A home for your website

প্রস্তুত রাখা হয়েছে ২৫৬ মেট্রিক টন চাল, নগদ তিন লাখ ৩২ হাজার টাকা, ২০৪ বান্ডিল ঢেউ টিন ও শুকনো খাবার। স্থানীয় লোকজনকে সতর্ক করতে উপকূলীয় উপজেলাগুলোতে মাইকিং করা হয়েছে।

খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

খুলনার সিভিল সার্জন আব্দুর রাজ্জাক জানান, সার্বিক পরিস্থিতি মোকাবেলায় ১১৪টি মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

ভারতের ওড়িশা উপকূলের দিকে এগোতে থাকা অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় "ফণি" আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠায় দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোতে সতর্কতার মাত্রা বাড়িয়ে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১২০৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১১৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১০৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১০৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল ফণি। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর/উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটার এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৮০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে। এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ (চার) নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় "ফণি" মোকাবেলায় বুধবার সচিবালয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তর আয়োজিত বৈঠক শেষে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানান, ভারতের ওড়িশা ও পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানার পর কিছুটা দুর্বল হয়ে আগামী ৪ মে সকালে বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ফণি।

Report by - //dailysurma.com

Facebook Comments

bottom