Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ইউনিসেফের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনী। শনিবার সেনাবাহিনীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তাদের দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ইউনিসেফের কর্মীরা ঠিক আগের মতো তাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যেতে পারবেন। এর আগে নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনী ইউনিসেফের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিল, তারা দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বোকো হারামের পক্ষে গোয়েন্দাগিরি চালাচ্ছে। এ ধরনের বিবৃতি প্রকাশের কয়েক ঘণ্টা পরই তাদের ওপর থেকে আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়া হলো।



এক বিবৃতিতে নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনী জানায়, ইউনিসেফের কর্মকাণ্ডের ওপর নিষেধাজ্ঞা তিন মাসের জন্য তুলে নেওয়া হচ্ছে। এ সময়ের মধ্যে তারা আগের মতো দেশটিতে তাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যেতে পারবেন। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ইউনিসেফের প্রতিনিধিরা যখন কোনো তথ্যের আদান-প্রদান করবেন তখন তাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সেটি সম্পন্ন করতে হবে।

এর আগে নাইজেরিয়ার পক্ষ থেকে ইউনিসেফের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলা হয়েছিল, তারা বিভিন্ন লোকজনের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রকারান্তরে তাদের দেশের সন্ত্রাস দমনের চেষ্টাকে বানচাল করছে। নাইজেরিয়ার সেনাবাহিনী একে তাদের সন্ত্রাসবিরোধী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ’কুঠারাঘাত’ বলে অভিহিত করে। নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জায়গাটি মূলত বোকো হারামের জন্য একটি অভয়ারণ্য। সেখান থেকেই জঙ্গি সংগঠনটি এবং তাদের অন্যান্য বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপ নাশকতামূলক কার্যকলাপ চালিয়ে আসছে। প্রায় এক দশক ধরেই তারা এই কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে।
নাইজেরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বোকো হারামের হাতে এ পর্যন্ত ৩০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। অনেকে প্রাণভয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বাধ্য হয়েছে। এছাড়া ১০ লাখেরও বেশি লোক বাস্তুচ্যুত হয়েছে। সহিংসতাময় এই জায়গাটিতে মানুষের বেঁচে থাকার জন্য আন্তর্জাতিক ত্রাণ সহায়তা এখন জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন। যে পরিমাণ ত্রাণ তাদের কাছে এসে পৌঁছাচ্ছে তা প্রয়োজনের তুলনায় সামান্য বলে সেখানকার অধিবাসীরা অভিযোগ করেছেন।

bottom