Foto

Please Share If You Like This News

Buffer Digg Facebook Google LinkedIn Pinterest Print Reddit StumbleUpon Tumblr Twitter VK Yummly

ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোর বৃহত্তর ফুটবল ক্লাব ফ্লেমিঙ্গোর ট্রেনিং সেন্টারে আগুন লেগে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে ক্লাবের চার ফুটবলার এবং ট্রায়াল দিতে আসা দুই ফুটবলার নিহত হয়েছেন। বাকি চারজন ক্লাবের কর্মকর্তা। যখন আগুন লাগে তখন সেখানে কম বয়সী ওই ফুটবলার ও কর্মকর্তারা ঘুমিয়ে ছিলেন।


এরআগে আগুন নিয়ন্ত্রণ কাজে থাকা ফায়ার সাভির্সের একজন কর্মী জানান, ’যখন ডরমেটরিতে আগুন লাগে তখন ফ্লেমিঙ্গোর কিছু তরুণ ফুটবলার ঘুমিয়ে ছিল। তাদের কেউ নিহতের মধ্যে আছেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।’ এছাড়া নিহতের পাশাপাশি তিনজন আহত হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে।

ফ্লেমিঙ্গোর আর্ট ট্রেনিং সেন্টার নিদো দেল উরুবোতে আগুন লাগে। নতুন এই ট্রেনিং সেন্টারটি মাস দুই আগে অনুশীলনের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। এখানে সাধারণত ফ্লেমিঙ্গোর ১৪ থেকে ১৭ বছরের তরুণ ফুটবলাররা খেলে থাকে।

ব্রাজিলের এই ফুটবল ক্লাবটি ১৮৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখান থেকে দেশটির অনেক তারকা ফুটবলার বেরিয়েছেন। জিকো, রোনালদিনহো, রোমারিও কিংবা সক্রেটিসরা এই ক্লাবের হয়ে খেলেছেন। প্রতিভা খুঁজতে ওস্তাদ এই ক্লাব থেকে সম্প্রতি রিয়াল মাদ্রিদে নাম লিখিয়ে দারুণ পারফর্ম করছেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র।

ব্রাজিলের টেলিভিশন চ্যানেল গ্লোবর তথ্য অনুযায়ী, যারা মারা গেছেন তারা ক্লাবেরই ফুটবলার। তবে তারা কোন নির্ভরযোগ্য সূত্র ব্যবহার করেনি। এছাড়া ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, আগুনে ক্লাবের শেড পুড়ে গেছে। পিলারগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।এছাড়া নিকটে থাকা গাছও আগুনের ঝাপটায় পুড়ে গেছে। ফ্লেমিঙ্গো থেকে রিয়ালে আসা ভিনিসিয়াস সবাইকে প্রার্থনা করতে অনুরোধ করেছেন। এটিকে অত্যন্ত দুঃখের খবর বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

bottom